DUCSU LPR


"জয় বাংলা" কে জাতীয় স্লোগান ঘোষণা করলো সুপ্রিম কোর্ট


Dec 13, 2019

Shares: 13



গত ১০ ই ডিসেম্বর মহমান্য হাইকোর্ট এর বিচারপতি এফ.আর.এম নাজমুল আহসান এবং বিচারপতি কে.এম কামরুল কাদেরের ডিভিশন বেঞ্চ এক রুলের শুনানিতে "জয় বাংলা" স্লোগানকে দেশের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে শুরু করে যেকোনো রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানের আগে, পরে ব্যবহৃত হবে বলে অভিমত দেন। মহামান্য আদালত আরও বলেন যে ১৬ ই ডিসেম্বর থেকেই দেশের সর্বস্তরে "জয় বাংলা" কেই জাতীয় স্লোগান হিসেবে ব্যবহার করা উচিৎ।

গত ৪ঠা ডিসেম্বর ২০১৭, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী বশির আহমেদের করা এক রীটের প্রেক্ষিতে এই যুগান্তকারী ঘোষনা দেন মহামান্য আদালত। এরপর ২০১৭ সালের ১০ ই ডিসেম্বর এক আদেশে "জয় বাংলা" স্লোগান নিয়ে সরকারের বক্তব্য এবং রাষ্ট্রনীতি জানতে চান সুপ্রিম কোর্ট। মহামান্য আদালত মত প্রকাশ করে যে, "১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধকালীন সময়ে "জয় বাংলা" ই ছিলো একমাত্র স্লোগান যা দেশে বিদেশে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছে। মহান মুক্তিযোদ্ধারা শুধু "জয় বাংলা" স্লোগান উচ্চারণ এর জন্য তাদের জীবন দিয়েছেন। পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে "জয় বাংলা" ছিলো রাজনৈতিক স্লোগান। ১৯৭১ এ "জয় বাংলা" ই ছিলো প্রধান রণধ্বনি।"

সুপ্রিমকোর্ট বার এর সভাপতি এ.এম.আমিন উদ্দিন বলেন, "আমাদের বর্তমান সংবিধানের ১৫০ অনুচ্ছেদে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ ই মার্চের ভাষণকে সংবিধানের অংশ করা হয়ছে এবং সেই ভাষণের শেষ অংশ হচ্ছে জয় বাংলা। আমরা মনে করি জয় বাংলা কে জাতীয় স্লোগান করা উচিত এবং অবশ্যই এটা আইনে পরিনত হবে।" অন্যদিকে ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এ.বি.এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার বলেন সংবিধানে ৩ ও ৪ অনুচ্ছেদে রাষ্ট্রভাষা বাংলা, জাতীয় প্রতীক এবং জাতীয় সঙ্গীত আছে কিন্তু জাতীয় স্লোগান নেই।

আগামী ১৪ ই জানুয়ারি এই আদেশের পরবর্তী শুনানি হবে। সবার আইনগত ব্যাখ্যা, বক্তব্য বিচার - বিশ্লেষণ করে আদালত অবশ্যই পরে একটি আদেশ দিবে। জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, "বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জাতীয় স্লোগান রয়েছে। আমরাও জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান করতে আদালতে মত দিয়েছি। আর মামলার পক্ষগণের মধ্যেও এ নিয়ে কোনো দ্বিমত নেই। আমরা আশা করছি জারিকৃত রুলটি হাইকোর্ট যথাযথ ঘোষনা করবে।"

মহামান্য আদালত আরও বলেন, "বাংলাদশে 'বাংলাদেশ জিন্দাবাদ' বা 'বাংলদেশ চিরজীবী' হোক ধরনের স্লোগান ও ব্যবহার করা হয়ে থাকে। দেশের জন্মের সঙ্গে যে স্লোগান তার কোনো পরিবর্তিত রূপ হতে পারেনা। পাকিস্তানের আদলে 'বাংলাদেশ জিন্দাবাদ' স্লোগান দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ভাবমূর্তি বিনষ্ট করা হয়েছে।" শুনানীতে রাষ্ট্রপক্ষের এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, "জয় বাংলা" ইতিহাসের অংশ। কিন্তু রাজনৈতিক হীনমন্যতা থেকে ১৯৭৫ এর ১৫ ই আগষ্ট এর পর এই স্লোগান নিষিদ্ধ করা হয়। জয় বাংলা কোনো সাধারণ স্লোগান না। এটা একটা চেতনা। যেই চেতনায় উজ্জীবিত হয়েই বাঙ্গালিরা স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

লিখেছেন ডাকসু ল' এন্ড পলিটিক্স রিভিউ এর সহযোগী সম্পাদক নুসরাত জাহান



Tags :